আমি যেভাবে কোভিড-১৯ মহামারীর মাঝে ইতিবাচক মনোভাব ধরে রাখছি

কোভিড১৯ মহামারীর শুরু থেকেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে আমি বেশ অবরুদ্ধ অবস্থায় দিনাতিপাত করছি এত লম্বা সময় ধরে বাড়িতে অবস্থান করা যেকোনো ব্যক্তির জন্যই বেশ চাপের এবং এতে করে অনেক সময় আইডেন্টিটি ক্রাইসিস তৈরি হয়সেই দিক বিবেচনায় মহামারীর পুরো সময়টা ইতিবাচক মনোভাব ধরে রাখা বেশ কঠিনই বটেএর জন্য আমি কিছু পন্থা নিজের জীবনের কিছু উপলব্ধি কাজে লাগিয়েছি

 

প্রথমত, এমনটা আশা করাই ভুল যে সবসময় আমাদের চারপাশে সবকিছু ভালো ঘটবে নিজেকে আমি এটা বলেছি সবসময় যে-” যা কিছু ঘটছে তার ওপর তো তোমার হাত নেই,তুমি সব সমস্যা মোকাবিলার জন্য তৈরি হও আমরা যদি সবাই নিজ নিজ ধর্মের প্রতি আস্থাশীল হই তবে তা আমাদের মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখতে অনেকটা সহযোগিতা করে এমনটা আমি মনে করি আমি সৃষ্টিকর্তার ওপর ভরসা রেখেছি এবং নিজ ধর্মের নিয়মানুযায়ী প্রার্থনা করেছি এটি আমাকে শক্তি দিয়েছে এটা বিশ্বাস করার যে যা ঘটবে ভালোর জন্যই ঘটবে

 

দ্বিতীয়ত, আমি এটা ভেবেছি যে আমাদের জীবনে এমন কত কিছু আছে যেটার জন্য আমাদের কৃতজ্ঞ থাকা উচিত কিন্তু আমরা ব্যস্ততার কারণে সেদিকে লক্ষ্যই করি না আমরা পরিবার পরিজন বেষ্টিত একটি সুস্থ পরিবারে থাকছি যা অনেকেই পায় না এখনও আমাদের টেবিলে খাবারের কমতি দেখা যাচ্ছে না অনেকটা সময় আমি নিজেকে দিতে পারছি বাবা, মা, ভাইয়ের সঙ্গে এতটা সময় আগে কখনো কাটানো সম্ভব হয় নি নিজের স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল করতে পারছি পড়ার সুবাদে আগে বেশিরভাগ সময় বাইরে থাকার দরুন ঘরের খাবার খাওয়া সম্ভব ছিল না এখন তো বারান্দার গাছগুলো কীভাবে একটু একটু করে বাড়ছে তাও লক্ষ্য করি সূর্যের আলো আজ কেমন করে সবকিছুকে উজ্জীবিত করছে তা নিয়ে ভাবিএতদিন তো নিজেকে নিয়ে ভাবার সময় হতো না নিজের ঘরকে আরো সুন্দরভাবে গুছিয়ে রাখা সম্ভব হতো না, যার প্রত্যেকটি কাজ এখন সম্ভব এসকল সুবিধার কথা চিন্তা করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেই অনেকটা ইতিবাচক মনোভাব ধরে রাখা যায়

নিজের ওপর কখনো জোর করি নি আমি মন যখন খারাপ হয়েছে তখন জোর করে মন ভালো করার চেষ্টা করি নি বরং মেনে নিয়েছি যে এটাই স্বাভাবিক তবে মনোবল হারালে চলবে না খুঁজে বের করেছি কোন সে কাজ বা জিনিস যা করতে আমার ভালো লাগে মন খারাপের সময় ভালো গান শুনছি,পুরোনো অ্যালবাম ঘেঁটে স্মৃতি রোমন্থন করেছি নিজেকে বার বার বলেছি সামনে নতুন দিন আসবে যা দেখার জন্য আমি বেঁচে থাকবো সুস্থভাবে কল্পনা করি আবার সেই দিন আসবে যখন সকাল সকাল ছুটে যাবো ব্যস্ততায়, সকলের সঙ্গে দেখা হবে আবার, সবাই গেযে উঠবে নতুন গান

Tanjima Bushra Raiyan
University Student
GB087

LEAVE REPLY

Your email address will not be published.